Gmail! | Yahoo! | Facbook

কিম ও ট্রাম্পের ঐতিহাসিক বৈঠক সিঙ্গাপুরে

FacebookTwitterGoogle+Share

kim-trump summitt১২ জুন ২০১৮ঃ দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে আজ ঐতিহাসিক বৈঠকে বসেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। শুরুতে তার পরস্পর করদর্মন করেন। কয়েক সেকেন্ডের করমর্দন শেষে কিম জং উনের ডান কাঁধ স্পর্শ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।
স্বতন্ত্র ভেন্যু দ্বীপরাষ্ট্র সিঙ্গাপুরে আকাক্সিক্ষত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা) সিঙ্গাপুরের সান্তোসা দ্বীপের ক্যাপেলা হোটেলে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই প্রথম কোনো ক্ষমতাসীন মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতাদের বৈঠক।
ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ক্যামেরার শোরগোলের মধ্যে কথা শোনা প্রায় অসম্ভব ছিল। কিন্তু ট্রাম্পকে বলতে দেখা গেছে, এর আগে যে সমস্যার সুরাহা অসম্ভব ছিল, সেটারই সমাধান করতে যাচ্ছি। আমরা সফল হব, এটার সুরাহা হবে।

দেড় ঘণ্টার এই বৈঠকে কক্ষের ভেতরে ট্রাম্পের সঙ্গে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও, জন বোল্টন ও জন কেলিকে দেখা গেছে।
kim-trump handshakeদুই পক্ষই পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ ও সম্ভাব্য শান্তি ফিরিয়ে আনা নিয়ে আলোচনা করেন। বিনিময়ে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে অর্থনৈতিক নিশ্চয়তা ও অবরোধ প্রত্যাহার চায় উত্তর কোরিয়া।
বৈঠকের আগে সোমবার দুদেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে প্রাথমিক আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। একইদিন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি শিয়েন লুংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন ট্রাম্প।-খবর বিবিসি, নিউ ইয়র্ক টাইমস ও এএফপির।
যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পিয়ংইয়ং ‘নতুন একটি সম্পর্ক স্থাপন’ করতে পারে, এমন একটি সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম। ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের ঐতিহাসিক বৈঠকের একদিন আগে এমন মনোভাব জানাল উত্তর কোরিয়া।
kim-trump meetবিবিসি বলছে, এই মন্তব্যে কয়েক দশক ধরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি উত্তর কোরিয়ার বিদ্বেষমূলক মনোভাব পোষণ করার পর সুর পাল্টানোর লক্ষণ প্রকাশ পেয়েছে।

মন্তব্য