Gmail! | Yahoo! | Facbook

কারাগার থেকে খালেদা জিয়ার নির্দেশনাঃ শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যান

FacebookTwitterGoogle+Share

bnp leadersঢাকা, ৭ মার্চ ২০১৮: পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নেতাকর্মীদের শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলনে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

বুধবার (৭ মার্চ) বিকেল ৩টার দিকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৮ সিনিয়র নেতা খালেদার সঙ্গে দেখা করতে গেলে তিনি নেতাকর্মীদের জন্য এ বার্তা দেন।

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কারাগার থেকে বেরিয়ে মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, নেত্রী সাহসিকতার সঙ্গে সব কিছুই মোকাবেলা করছেন। তিনি আমাদের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানিয়েছেন, তার মনোবল অত্যন্ত উঁচু রয়েছে। শরীরের অবস্থাও ভালো। দেশের জন্য যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে তিনি প্রস্তুত। শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। একদিন সত্য প্রতিষ্ঠিত হবেই।

শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের বিষয়ে মহাসচিব বলেন,  তারা (পুলিশ) আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে ইচ্ছাকৃতভাবে উস্কানি দিচ্ছে। খালেদা জিয়া এ ধরনের উস্কানিতে পা না দিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে বলেছেন।

মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে খালেদা জিয়ারকে কারাগারে রাখা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, জামিন ঠেকাতে সরকার নানা ধরনের কূটকৌশল করেছে। এর বিরুদ্ধে আমরা আইনিভাবে ও শান্তিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক পদক্ষেপ নেব।

ফখরুল আরও বলেন, নেত্রী কারাগারে থাকায় যৌথ নেতৃত্বে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিচ্ছি এবং শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি।

এসময় এক প্রশ্নে জবাবে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বাংলানিউজেক বলেন, ১২ মার্চের জনসভার জন্য নেত্রী আমাদের অনেক দিক নিদের্শনা দিয়েছেন এবং সব কিছুই শান্তিপূর্ণভাবে পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন।

কারা সূত্রে জানা যায়, পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের অফিস কক্ষে বিকেল সোয়া ৩টার দিকে বিএনপির সিনিয়র ৮ নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন।

এর আগে ৬ মার্চ বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুর রহমানের কাছে এ ১০ নেতার তালিকা দেন।

ফখরুল ছাড়াও তালিকায় ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ড. আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং বিএনপি চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এ বি এম আব্দুস সাত্তার। বাংলা নিউজ

 

মন্তব্য