Gmail! | Yahoo! | Facbook

বেফাকের কাউন্সিলঃ আল্লামা শফী সভাপতি, আবদুল কুদ্দুস মহাসচিব নির্বাচিত

FacebookTwitterGoogle+Share

ahmad_shofiঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ঃ বেফাকের কাউন্সিলে আগামী ৫ বছরের জন্য আল্লামা আহমদ শফী সভাপতি, আল্লামা আবদুল কুদ্দুস মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন।

আল্লামা আহমদ শফীর সভাপতিত্বে আজকের এ ১০ম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

সিনিয়র সহসভাপতি হয়েছেন জামিয়া শরইয়্যাহ মালিবাগের মুহতামিম আল্লামা আশরাফ আলী।

জামিয়া ইমদাদিয়া ফরিবাদাদের মুহতামিম মাওলানা আবদুল কুদ্দুসকে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব থেকে পূর্ণ মহাসচিব করা হয়েছে।

ঘোষিত নতুন কমিটিতে ২৭ জনকে সহসভাপতি করা হয়েছে।

সহসভাপতিগণ হলেন- আল্লামা আজহার আলী আনোয়ার শাহ (জামিয়া ইমদাদিয়া কিশোরগঞ্জ), আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী (বারিধারা), মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস (মনিরামপুর যশোর), আল্লামা মোস্তফা আযাদ (আরজাবাদ), প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান (সিলেট), মাওলানা আবদুল কুদ্দুস ( মিরপুর), মাওলানা আবদুল বারী ধর্মপুরী (মৌলভীবাজার), মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী (বাবুনগর, চট্টগ্রাম), মাওলানা নূরুল ইসলাম আযাদী (ওলামাবাজার ফেনী), আল্লামা মাহমুদুল হাসান (যাত্রাবাড়ী), মাওলানা আবদুর রহমান হাফেজ্জী (মোমেনশাহী), মাওলানা আবদুল হামিদ (মধুপুর), মাওলানা নূরুল ইসলাম (খিলগাঁও), মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী (জামিয়া নূরিয়া), মাওলানা সাজিদুর রহমান (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), মাওলানা সালাহুদ্দীন (নুনুপুর, চট্টগ্রাম), মাওলানা ছফিউল্লাহ (জামিয়া দ্বীনিয়া, মতিঝিল), মুফতি জাফর আহমদ (ঢালকানগর), মুফতি ফয়জুল্লাহ (লালবাগ), মাওলানা মুসলেহুদ্দীন রাজু (সিলেট), মাওলানা আনাস মাদানী (হাটহাজারী) মাওলানা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী, মাওলানা বদরুদ্দীন (সিলেট), মাওলানা আশেক এলাহী (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), মাওলানা ফয়জুল্লাহ (মাদানীনগর)।

নতুন কমিটিতে সহকারী মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন ৮ জন।

এরা হলেন মাওলানা মাহফুজুল হক (মুহতামিম, জামিয়া রহমানিয়া আরাবিয়া ঢাকা), মুফতি নুরুল আমিন (মুহাদ্দিস, ফরিদাবাদ মাদরাসা ঢাকা), মুফতি কেফায়েতুল্লাহ আজহারী ( আল মানহাল কওমী মাদরাসা উত্তরা), মুফতি নেয়ামাতুল্লাহ (জামিয়া সাহবানিয়া দারুল উলুম ঢাকা), মাওলনা শামসুল হক (দ্বীনি শিক্ষাবোর্ড হবিগঞ্জ), মাওলানা নজরুল ইসলাম (এদারায়ে তালিমিয়া সিলেট), মাওলানা মোবারক উল্লাহ (এদারায়ে তালিমিয়া বি.বাড়িয়া), মাওলানা জামালুদ্দীন মাহমুদ (তালিমি বোর্ড মাদানীনগর)।

সভাপতির বক্তব্যে আল্লামা আহমদ শফীর বলেন, আমাকে ১০ বছর ধরে বেফাকের সভাপতি করায় সবাইকে ধন্যবাদ। যদিও আমি এ পদের যোগ্য নই, তবু প্রাণপণে চেষ্টা করছি বেফাককে সম্প্রসারণ করার।

তিনি আলেমদের সব সময় বাতিল মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ থাকার পরামর্শ দেন।

মন্তব্য