Gmail! | Yahoo! | Facbook

ভারত কাশ্মীরীদের উপর ভয়াবহ নির্যাতন চালাচ্ছে – ড. আহমদ আবদুল কাদের

FacebookTwitterGoogle+Share

কাশ্মীর ইস্যু কোনভাবেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় নয়
dr aa quaderঢাকা, ২৮ আগস্ট ২০১৯: খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, ভারত কাশ্মীরী জনগণের উপর ভয়াবহ নির্যাতন চালাচ্ছে। ভারত কাশ্মীরে ভয়াবহ আগ্রাসন শুরু করেছে। গত ৫ আগস্ট ভারত সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারত কাশ্মীর অবরুদ্ধ করে রেখেছে। পুরো কাশ্মীরকে অবরুদ্ধ করে, নাগরিক সুবিধা বন্ধ করে দিয়ে ভারতীয় বাহিনী কাশ্মীরীদের উপর অকথ্য জুলুম চালাচ্ছে। কাশ্মীরী মুসলমনাদের জীবন নিয়ে বিশ্ববাসী আজ গভীরভাবে শংকিত। কাশ্মীরীদের অধিকার আদায় ও অবরুদ্ধ কাশ্মীরী জনগণকে রক্ষায় জাতিসংঘসহ বিশ্বসীকে সোচ্চার হতে হবে। খেলাফত মজলিসে কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের জনগণ মুক্তিকামী কাশ্মীরীদের পক্ষে আছে এবং থাকবে থাকবে। কাশ্মীর ইস্যু কোনভাবেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় নয়। ভারত শক্তি প্রয়োগ করে কাশ্মীরের স্বাধীন সত্ত্বাকে হরণ করতে চাচ্ছে। ১৯৪৮ সালের জাতিসংঘ প্রস্তাবনা অনুযায়ী কাশ্মীরী জনগণের মতামতের ভিত্তিতেই গোলযোগপূর্ণ কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে হবে। ভারত যুগযুগ ধরে কাশ্মীরী মুসলমানদের উপর হত্যা, জুলুম, নির্যাতন চালিয়ে আসছে। আবার নতুনভাবে কাশ্মীরী জনগণের উপর ভারত আগ্রাসন চালাচ্ছে। পুরো কাশ্মীর উপত্যাকা আজ রক্তে রঞ্জিত। কিন্তু কারফিউ জারি করে সেনাবাহিনী দিয়ে দমন-পিড়ন হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে কাশ্মীরী জনগণের স্বাধীকার আন্দোলনকে স্তিমিত করা যাবে না।
গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের নায়েবে আমীর অধ্যাপক আবদুল্লাহ ফরিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্মমহাসচিব- মাওলানা মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন, এডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, শেখ গোলাম আসগর, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল হালিম, এডভোকেট মিজানুর রহমান, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, অধ্যাপক কে এম আলম, আলহাজ্ব আবু সালেহীন, মুক্তিযোদ্ধা ফয়জুল ইসলাম, মাওলানা আজীজুল হক, হাজী নূর হোসেন প্রমুখ।
বৈঠকে আগামী ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১০:৩০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে ‘চামড়া শিল্পসহ সর্বব্যাপী আর্থ-সামাজিক অস্থিরতা ও করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারের কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে।

মন্তব্য