Gmail! | Yahoo! | Facbook

ভোটারশূন্য সিলেটের ১৭ উপজেলার বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র

FacebookTwitterGoogle+Share

habi১০ মার্চ ২০১৯ঃ দেশের পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ৮৭টি উপজেলার মধ্যে ৭৮টি উপজেলায় ভোট গ্রহণ চলছে আজ সকাল ৮টা থেকেই। সিলেটের হবিগঞ্জ জেলার ৮টি উপজেলায় ও সুনামগঞ্জের ৯টি উপজেলায় সকাল থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। তবে সকাল থেকেই ভোটারের উপস্থিতি কম হলেও দুপুরে ভোটারের উপস্থিতি বাড়তে পারে- এমন ধারণা করা হয়। কিন্তু দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ভোটারের সাড়া পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে উপজেলাগুলোর বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা যায়, সকাল থেকে বেশীরভাগ ভোটকেন্দ্রে বিচ্ছিন্নভাবে কয়েকজন ভোটার ভোট প্রদান করছেন। ভোটকেন্দ্রের সামনে নেই দীর্ঘ লাইন। ভোটকেন্দ্রগুলো ভোটারশুণ্য রয়েছে। তবে কিছু সময় পরপর দুই একজন ভোটার আসছেন।

সকাল থেকে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম। তবে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটসহ চা অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে সকাল থেকেই ভোটারের কিছুটা দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। পুরুষের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি লক্ষণীয়। দুপুরের পর থেকে ভোটারের উপস্থিতি আরো বাড়বে বলে ধারনা করা হলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভোটার উপস্থিতি লক্ষণীয় ছিল না।

বিভিন্ন কেন্দ্রে সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ১০/১৫টিও ভোট পড়েনি বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, দুইটার পর ভোটার উপস্থিতি বাড়তে পারে, সকালের দিকে ভোটাররা বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকায় ভোটকেন্দ্রে আসছেন না। এদিকে, ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে নিয়ে আসতে তাদেরকে অনুরোধ জানাচ্ছেন বিভিন্ন পদের প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকেরা।

বিভিন্ন ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ধানের শীষ তথা বিএনপির প্রার্থীদের অনুপস্থিতিতে ভোটের আমেজ নেই। বিএনপি এবং অন্যান্য দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় ভোট দেওয়ার আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন বলে জানান অনেক ভোটার।

তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত, ভোটারের উপস্থিতি কম হলেও সকাল থেকেই ভোটকেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। কোন ধরণের বিশৃংখলার খবর এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, সকাল থেকেই হবিগঞ্জের আটটি উপজেলায় ভোট গ্রহণ চলছে। হবিগঞ্জের আটটি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২৯, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪৪ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে, সুনামগঞ্জের ৯টি উপজেলার ৫৪১টি ভোটকেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। এবারের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬৭ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩৫ জন প্রার্থীসহ ১৩০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৯টি উপজেলার ১৩ লাখ ৬৩ হাজার ৬৭০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের কথা রয়েছে। জেলার ১১টি উপজেলার মধ্যে গত শুক্রবার জামালগঞ্জ উপজেলার নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এছাড়া জগন্নাথপুর উপজেলায় গেলবার পুন: নির্বাচন হওয়ায় এখানে এ মেয়াদে কোনও নির্বাচন হচ্ছে না। বাংলাদেশ প্রতিদিন

মন্তব্য